Pages

Categories

Search

আজ- মঙ্গলবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮

আশেক নূরী বড় শিল্পী হতে চান

ফেব্রুয়ারি ১, ২০১৭
নারী অঙ্গন, বিনোদন, রংপুর
No Comment

Nuri 4
বখতিয়ার রহমান, পীরগঞ্জ(রংপুর): আশেক নূরী । গ্রামগঞ্জের সাংস্কৃতিক মনা অনেকের কাছে একটি পরিচিত নাম । নিজেকে গানের মাঝে উজাড় করে দিয়ে সবার মনের খোরাক যোগাতে চান এ শিল্পী। সুমধুর কণ্ঠই তাকে ঘর থেকে বের করে এনে দিয়েছে পরিচিতি, খ্যাতি আর প্রতিষ্ঠা। রংপুরের এই অঞ্চলে সবাই একনামে তাকে জানেন। এমন লোক খুব কমই আছে- যিনি আশেক নূরীর ক্যাসেটের গানের সাথে ঠোঁট মেলাননি। ইতিমধ্যে পঞ্চাশটিরও বেশি গানের ক্যাসেট বের হয়েছে তার। বিশ্ববাণী নামের বগুড়ার একটি রেকর্ডিং কোম্পানী এককভাবে বাজারজাত করছে আশেক নূরীর এই গানের ক্যাসেট। আশেক নূরীর টানাপোড়েনের সংসারে মূলত বিশ্ববাণীর প্রদত্ত অর্থেই স্বচ্ছলতা ফিরে আসে। গাইবান্ধা জেলার অন্তর্গত সাদুল্যাপুর উপজেলার বোয়ালীদহ গ্রামের এক হত-দরিদ্র পরিবারে জন্ম আশেক নূরীর। দারিদ্রের অতি নির্মম কষাঘাতে নিষ্পেষিত অসহায় পিতা কলিম উদ্দিন কম বয়সেই নূরীকে বিয়ে দেন পীরগঞ্জ উপজেলার রাজারামপুর গ্রামের ইদু মিয়া নামের এক যুবকের সাথে। টানা দু’বছর স্বামী-সংসার করার পর তাকে কিছু না জানিয়েই স্বামী হঠাৎ দ্বিতীয় বিয়ে করে। দরিদ্র পিতার অসহায় কন্যা নূরী কোন প্রকার প্রতিবাদ না করেই নিঃশব্দে চলে আসেন বাবার বাড়ি। কৈশরের সুর চর্চা শুরু হয় আবার। আশপাশের অনুষ্ঠান গুলোতে একের পর এক ডাক পড়তে থাকে তার। প্রফুল­চিত্তে তিনি অংশ নেন সেসব অনুষ্ঠানে। এভাবে এক অনুষ্ঠানেই পরিচয় হয় পীরগঞ্জ উপজেলার চতরা ইউনিয়নের চকভেকা গ্রামের লালমিয়া বয়াতির সাথে। পরিচয় থেকে প্রণয় এবং অবশেষে তা গড়ায় বিয়ে পর্যন্ত। সম-মনা স্বামীর সাথে চলে গানের নিয়মিত রেওয়াজ। বিকেল হতে সন্ধ্যা পর্যন্ত চলে সঙ্গীত চর্চা। পরিচিতি বাড়ার সাথে সাথে এখন আশপাশের উপজেলা গুলোতেও চলে আশেক নূরীর একক সঙ্গীত অনুষ্ঠান। নাম শুনেই নারী পুরুষ নির্বিশেষে উপচেপড়া ভিড় জমে অনুষ্ঠান গুলোতে। নানা প্রসঙ্গ নিয়ে খোলামেলা কথা হয় আশেক নূরীর সাথে। অভাবের কারণে শৈশবে তিনি পড়ালেখার ইতি টানেন। প্রাথমিক বিদ্যালয় পর্যন্ত যাতায়াত ছিল তার। শাঁক-সব্জিযুক্ত সাধারণ খাবারই আশেক নুরীর প্রিয়। প্রিয় শিল্পী আব্দুর রহমান বয়াতী। ভাল কোন গান আর ক্যাসেট কোম্পানীর ভাল পৃষ্ঠপোষকতা পেলে এক গানেই বাজার হিট করতে চান নূরী। আধুনিক সব সুযোগ সুবিধা পেলে তিনিও আসতে পারবেন কাঙ্গালীনি সুফিয়া বা ফোক শিল্পী মমতাজের মত লাইম লাইটে- । আর এ প্রত্যাশাও তার । আশেক নুরীর একমাত্র আশা, জীবনে অনেক বড় শিল্পী হওয়ার। এজন্য তিনি সকলের দোয়া প্রত্যাশা করেন।