Pages

Categories

Search

আজ- সোমবার ১৯ নভেম্বর ২০১৮

অসুস্থ্য ছাত্রের আকুতি,স্যার আপনার কাছে পড়ার আমার খুব ইচ্ছে ছিল

এপ্রিল ২, ২০১৭
বিবিধ, ময়মনসিংহ
No Comment

?????

মোঃ রফিকুল ইসলাম রফিক, বিশেষ প্রতিনিধি : শ্বাষজনিত সমস্যা ও অন্যান্য উপসর্গ শরীরকে ধীরে আঁকড়ে ধরতে শুরু করেছে তাই কথা জড়িয়ে আসে। যে টুকু বলে তাও ষ্পষ্ট না। নিঃশ্বাষ নিতেও কষ্ট হচ্ছে। এ অবস্থায় নিজের বাসায় স্কুলের প্রিয় শিক্ষককে উপস্থিত দেখে হতচকিত হয়ে অনেকটা ইশারায় ছালামের ভঙ্গিতে দাঁড়ানোর চেষ্ঠা করছিল। যেভাবে বিদ্যালয়ের ক্লাশে দাঁড়িয়ে স্যাারকে সম্মান দেখাতো।

স্যার ইশারায় নিষেধ করায় দাঁড়ানোর ব্যার্থ চেষ্ঠা থেকে তাকে নিবৃত করা হয়।ঘটনাটি ঘটে রোববার দুপুরে ভালুকা পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেনীর মেধাবী ছাত্র হাসান মাহমুদ তন্ময়ের বাসায়। মরনব্যাধি ক্যান্সার তাকে আঁকড়ে ধরেছে। ভারত ও বাংলাদেশের বিভিন্ন হাসপাতালে একটানা ৩/৪বছর চিকিৎসা শেষে এখন উপজেলা সদরের ৬নং ওয়ার্ডের বাড়া বাসায় অবস্থান করছে পিতা-মাতার সাথে।

তন্ময়ের অসুস্থ্যতা ও এ হেন দুরাবস্থার খবর শুনে বাসায় দেখতে যান ভালুকা পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের সদ্য অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক মোঃ ছাইফুল ইসলাম ও বিদ্যালয়ের অপর শিক্ষক মোঃ রফিকুল ইসলাম রফিক। তার অবস্থা এখন অনেকটাই শংকটাপন্ন। হয়তো সে নিজেও উপলব্ধি করতে শুরু করেছে। তাইতো পাশে বসে মাথায় হাত বুলাতেই তন্ময়ের ভাঙ্গা কন্ঠের আকুতি ’স্যার আপনার কাছে আমার পড়ার খুব ইচ্ছে ছিল ’। জোরে জোরে নিঃশ্বাষ নিতে থাকে এবং ভাঙ্গা গলায় জড়ানো কন্ঠে একাধারে কয়েকবার অষ্পষ্ট উচ্চারন ’স্যার আপনার কাছে আমার পড়ার খুব ইচ্ছে ছিল,আমার জন্য দোয়া করবেন ’।

ছাত্রের এহেন আকুতিতে চোখে পানি ছলছল করছিল শিক্ষকদেরও। ছাত্রের মাথায় হাত বুলিয়ে স্যার শান্তনা দিচ্ছিলেন ’আগে তুমি সুস্থ্য হয়ে উঠ,আমি তোমাকে পড়াব এবং দোয়া করি ইনশাল্লাহ অবশ্যই তুমি সুস্থ্য হয়ে উঠবা। পাশে থাকাবস্থায় শ্বাষ নেয়ার জন্য ইনহেলার ব্যাবহার মুখে ধরছিলেন তার মা। পিতা কামরুজ্জামান বুলবুল জানান,শুয়ে থাকলে নিঃশ্বাষ নিতে আরো বেশী কষ্ঠ হয়। মাতা হাসিনা মমতাজ শিখা জানান,লিকুইড জাতীয় খাবার যেমন ফলের জুস ছাড়া অন্য কোন খাবার গ্রহন করতে পারছেনা এখন। মানুষের দোয়া ও সৃষ্টি কর্তার উপর ভরসা করা ছাড়া এখন চোখে মুখে আর কোন স্বপ্ন নেই বাবা-মায়ের।

হাসান মাহমুদ তন্ময় দুরারোগ্য ব্যাধি ক্যান্সারে আক্রান্ত। ডাক্তারী পরিভাষায় যাকে বলে লিমফোমা লিকুমিয়া। যা দেহে রক্ত উৎপাদন ক্ষমতা হ্রাস করে ফেলে। রক্ত সঞ্চালন স্বাভাবিক না থাকায় দেহের বিভিন্ন স্থানে ষ্পট ষ্পষ্ট হয়ে উঠতে শুরু করেছে। বিভিন্ন স্থান ফুলে উঠতে শুরু করেছে। অনেকটা অনিশ্চিত শংকায় দিন-রাত কাটছে পরিবারের। প্রাথমিক সমাপনীতে উপজেলায় ৪র্থ স্থান অর্জন ও ট্যালেন্টপুলে বৃত্তিধারী হাসান মাহমুদ তন্ময় ভালুকা পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ে ৬ষ্ট শ্রেনীতে ভর্তি হওয়ার কয়েক মাস পরেই এ রোগে আক্রান্ত হয়। ঢাকায় পরীক্ষা নিরিক্ষার পর ক্যান্সার ধরা পড়লে ভারতের তামিলনাড়–’র বেলোর সিএমসি (ক্রিশ্চিয়ান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল) হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় তাকে। সিএমসি’র ডাঃ অভিজিৎ পাল দীর্ঘ তিন বছর চিকিৎসার পর অনেকটা নিরাশ করেই বাড়িতে ফেরত পাঠান। সুস্থ্যতাতো নয়ই স্বপ্নও দেখাতে পারেননি। এ অবস্থায় আল্লাহ’র উপর ভরসা করা ছাড়া কোন পথ খোলা নেই তাদের।

বছরে ৪বার করে টানা তিন বছর ভারতের তামিলনাড়–তে চিকিৎসার জন্য অবস্থান করেছে তারা। ফাঁকে এসে ২০১৫ সালে জেএসসি পরীক্ষায় অংশ নেয় তন্ময়। পড়ালেখার সঙ্গে সম্পর্কহীন থাকার পরও জেএসসিতে ৪.৬৫ পয়েন্ট পেয়ে নবম শ্রেনীতে উত্তীর্ন হয়। কিন্তু বিধিবাম। ভাগ্য বিরম্বিত তন্ময়ের পিছু ছাড়ছেই না মরনব্যাধি ক্যান্সার। এ অবস্থায় অনিশ্চয়তা ও শংকার মধ্যেই দিনাতিপাত চলছে মেধাবী ছাত্র তন্ময়ের।

ভালুকা পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়,কাতলামারী উচ্চ বিদ্যালয়সহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা স্কুলে স্কুলে তার জন্য বিশেষ দোয়া’র ব্যাবস্থা নিয়েছে। তন্ময়ের পিতা কামরুজ্জামান বুলবুল জানান,সকলের দোয়া-ই এখন তন্ময়ের একমাত্র অবলম্বন। আল্লাহ পাক মহান তিনি যদি কৃপা করেন এছাড়া আর কোন পথ খোলা দেখছেন তিনি প্রিয় সন্তানের জন্য। একমাত্র সন্তানের জন্য জন্য সকলের কাছে দোয়া