Pages

Categories

Search

আজ- শুক্রবার ১৬ নভেম্বর ২০১৮

অজ্ঞানপার্টির খপ্পরে পড়ে ঢামেকে ভর্তি ৪

নভেম্বর ১৬, ২০১৫
অপরাধ
No Comment

full_1489834383_1439104793রাজধানীর পৃথক স্থানে ইতালী প্রবাসীসহ চারজনকে অচেতন করে সব কিছু নিয়ে গেছে অজ্ঞানপার্টির সদস্যরা। খপ্পরে পড়া এ সব ব্যক্তিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

সোমবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত যাত্রাবাড়ি, মহাখালী ও গুলিস্তানে এসব ঘটনা ঘটে।

অচেতন অবস্থায় উদ্ধার হওয়া এসব ব্যক্তিরা হলেন— ইদ্রিস আলী (৩০), জজ কোর্টের মুহুরি মো. আশরাফুল আলম জুয়েল (৪৫), সৈয়দ রাহাত আলী (৫৫) ও অজ্ঞাত আনুমানিক ৩০ বছরের একজন।

তাদের মধ্যে ইতালী প্রবাসী ইদ্রিস আলীকে (৩০) যাত্রাবাড়ির ধোলাইপাড়েরর রাস্তার পাশ থেকে উদ্ধার করেন পথচারীরা। তারা ইদ্রিস আলীর সঙ্গে থাকা মোবাইলফোনের নম্বর দেখে জুয়েল নামে এক প্রতিবেশীকে ঢেকে এনে তাকে হাসপাতালে পাঠান।

প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাত দিয়ে জুয়েল জানান, ইদ্রিস আলীর বাড়ি যশোর জেলায়। গতকাল রবিবার রাত ১০টায় তার ফ্লাইট ছিল। কিন্তু তিনি সোমবার রাত ১০টায় ফ্লাইট মনে করে সকালে শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে যান। সেখানে গিয়ে তার ফ্লাইট মিস হওয়ার কথা জানতে পারেন।

তিনি জানান, বিমানবন্দরে অপরিচিত দুই ব্যক্তির সঙ্গে আলাপচারিতা হয় ইদ্রিসের। এরপর অজ্ঞানপার্টির এই সদস্যরা সখ্যতা গড়ে তুলে তাকে একটি সিএনজিচালিত অটোরিকশায় তুলে বিমানবন্দর থেকে ফেরেন। একপর্যায়ে ওই দুই যুবক অচেতন করে টাকা-পয়সা ও ব্যাগ রেখে তাকে ইদ্রিস আলীকে ধোলাইপাড়ের রাস্তার পাশে ফেলে পালিয়ে যায়।

এদিকে, মহাখালীর বাস টার্মিনালে অজ্ঞাত আনুমানিক ৩০ বছরের এক ব্যক্তিকে পথচারীরা অচেতন অবস্থায় ঢামেক হাসপাতালে ভর্তি করেছেন। তার কাছে কোনো মোবাইলফোন ও টাকা পয়সা পাওয়া যায়নি।

সোমবার সকালে যাত্রাবাড়িতে একই ধরনের আরও একটি ঘটনা ঘটে। যাত্রাবাড়ির গোলাপবাগ থেকে মো. আশরাফুল আলম জুয়েল (৪৫) নামে জজ কোর্টের এক মুহুরিকে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করেন পথচারীরা। তাকে ঢামেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

খবর পেয়ে রিয়াদুল ইসলাম নামে তার এক সহকর্মী ঘটনাস্থলে গিয়ে তাকে উদ্ধার করেন।

তিনি জানান, আশরাফুল আলম গুলশানে থাকেন। তিনি সকালে বাসা থেকে বাসে করে জজ কোর্টে যাওয়ার পথে অজ্ঞানপার্টির খপ্পরে পড়েন।

এ ছাড়া গুলিস্তান গোলচত্বর থেকে সৈয়দ রাহাত আলী (৫৫) নামে একজনকে অচেতন অবস্থায় ঢামেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

ঢামেক হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) সেন্টু চন্দ্র দাস এ সব ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, যাত্রবাড়ি, মহাখালী ও গুলিস্তান থেকে অজ্ঞানপার্টির খপ্পরে পড়া চারজনকে অচেতন অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তারা সবাই ৬০২ নম্বর ওয়ার্ডে ভর্তি চিকিৎসাধীন আছেন।